নীড় / বিবিধ / সংবাদ / ভেটেরিনারিয়ানদেরকে রেনাটা এনিম্যাল হেলথের এমআর এর কটাক্ষ করার ব্যাপারে রেনেটা ও বিভিএর বক্তব্য

ভেটেরিনারিয়ানদেরকে রেনাটা এনিম্যাল হেলথের এমআর এর কটাক্ষ করার ব্যাপারে রেনেটা ও বিভিএর বক্তব্য

ভেটেরিনারিয়ানদেরকে রেনাটা এনিম্যাল হেলথের এমআর এর কটাক্ষ ব্যাপারে রেনেটা এনিম্যাল হেলথের হেড অফ মার্কেটিং ডাঃ বিশ্বজিৎ বায় বলেন, “আমি এ ব্যাপারে এখনই কোন মন্তব্য করতে চাইনা। তবে আমি ঘটনাটি জানার সঙ্গে সঙ্গে আমাদের আর এস এম এর সাথে কথা বলেছি এবং তাকে নির্দেশ দিয়েছি যেন তিনি সেলস ম্যানেজারের সাথে আলোচনা করে দ্রুত সমস্যাটি সমাধান করে নেন।”

ঘটনা প্রসঙ্গে বাংলাদেশ ভেটেরিনিারি এসোসিয়েশন (বিভিএ) এর অবস্থান সর্ম্পকে সংগঠনটির মহাসচিব ড. হাবিবুর রহমান মোল্লা জানান, তিনি বিষয়টি নিয়ে সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষের সাথে কথা বলছেন। সবাইকে ধৈর্য্য ধরার অনুরোধ করেছেন।

উল্লেখ্য বাংলাদেশে প্রাণী ওষুধ শিল্পের অন্যতম প্রতিষ্ঠান রেনেটা এনিম্যাল হেলথের একজন মার্কেটিং রিপ্রেজেনটেটিভ (এমআর) ভেটেরিনারিয়াদেরকে কটাক্ষ করেছেন বলে অভিযোগ করেছেন নীলসাগর গ্রুপের এক্সিকিউটিভ ডা. আবদুল্লাহ আল মামুন। গত বুধবার সামাজিক যোগাযোগের মাধ্যম ফেসবুকে দেওয়া ওই বিবৃতিতে ডা. মামুন বলেন, তার ব্যবস্থাপত্রে পরামর্শকৃত ওষুধ সম্পর্কে মন্তব্যের এক পর্যায়ে ভেটেরিনারিয়ানদের হেয় করে কথা বলেন মনিরুল নামের ওই এমআর। ডা. মামুনের দেওয়া বিবৃতি অনুযায়ী ওই এমআরের ভাষ্য ছিল, “ডিভিএম দরকার নাই এই (প্রাণী ওষুধ শিল্পে) সেকটরে। সে বলে আমি একজন গ্রাজুয়েট ডিভিএম একজন গ্রাজুয়েট। তাকে স্যার বলতে হবে কেন?” তিনি আরও বলেন, “অনেক VS আছে যাদের নাকি কোম্পানির অফিসার প্রেসক্রিপশন লেখা শেখায়। তাহলে তারা কি পড়ে আসে?”
ফেসবুকে ডা. মামুনের এই বিবৃতি দেওয়ার পর প্রতিবাদের ঝড় উঠে ভেটেরিনারিয়ান সমাজে। এরই প্রেক্ষিতে এর উপযুক্ত শাস্তি না হওয়া পর্যন্ত রেনেটা এনিম্যাল হেলথের সকল পন্য তাদের ব্যবস্থাপত্রে বর্জনের ঘোষনা দিয়েছেন বিভিন্ন স্তরের ভেটেরিনারিয়ানরা।

লেখকঃ Mahdi Hasan

এটাও দেখতে পারেন

টেলিভিশনে প্রচারিত সংবাদের বিরুদ্ধে সারাবাংলার ভেটেরিনারিয়ানদের নিন্দার ঝড়ঃ মহাসচিবের প্রত্যাখ্যান

প্রাণিসম্পদ অধিদপ্তরের ভবন ও জায়গা দখল করে বাংলাদেশ ভেটেরিনারি এসোসিয়েশন বাণিজ্য করছে, এমন শিরোনামে ইনডিপেন্ডেন্ট টেলিভিশনে …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *