কৃত্রিম মুরগির ডিম

এক ধরনের কৃত্রিম ডিম পৃথিবীর বিভিন্ন দেশে তৈরি হচ্ছে। বাংলাদেশের বাজারে এই ডিমের কেনা-বেচার বিষয়ে সতর্ক দৃষ্টি রাখছে মত্স্য ও প্রাণিসম্পদ অধিদপ্তর।

১১ ধরনের উদ্ভিদ দিয়ে তৈরি করা হয় এই কৃত্রিম ডিম। যুক্তরাষ্ট্রের ‘হ্যাম্পটন ক্রিক ফুড’ নামের একটি প্রতিষ্ঠান এই ডিম উদ্ভাবন করেছে। গত বছরের ১১ সেপ্টেম্বর ২০১৩ থেকে এ ডিম সেখানকার সুপার শপগুলোয় বিক্রি হচ্ছে। মাইক্রোসফটের প্রতিষ্ঠাতা বিল গেটস এবং পে-পলের সহপ্রতিষ্ঠাতা পিটায় থিয়েল এ ডিম তৈরির জন্য অর্থের জোগানদাতা এবং তাঁরা ডিম প্রস্তুতকারী কোম্পানিটির উপদেষ্টা হিসেবে কাজ করছেন।

কৃত্রিম উপাদান দিয়ে তৈরি করা এই ডিম সাধারণ মুরগির ডিমের মতো। এটি দিয়ে কেক, কুকিজ, মেয়নেজসহ নানা উপাদেয় খাদ্যদ্রব্য তৈরি করা হয়। উত্পাদনকারী প্রতিষ্ঠানের ভাষ্য মতে, কৃত্রিম ডিম স্বাস্থ্যসম্মত। এর উত্পাদন খরচ সাধারণ মুরগির ডিমের চেয়ে ১৯ শতাংশ কম।

সুএঃ প্রথম আলো (২৩/০৬/১৪)

লেখকঃ ডাঃ মোঃ নাহিদ হাসান

Avatar
DVM, M.S in Pharmacology (BAU) E-mail: nahiddvm788@gmail.com

এটাও দেখতে পারেন

এগ্রোভেট ফার্মার উদ্যোগে খামারী প্রশিক্ষন কর্মশালা অনুষ্ঠিত

প্রতিষ্ঠালগ্ন থেকেই পোল্ট্রী , ডেইরী, ফিশারিজ শিল্প সম্প্রসারনের জন্য কাজ করে চলেছে এগ্রোভেট ফার্মা। শুধু …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.