নীড় / বিবিধ / ভেটেরিনারি পেশা / প্রানিসম্পদ সেক্টরে পেশাজীবিদের মধ্যে বিদ্যমান সঙ্কট নিরসনে ভেটেরিনারিয়ানদের করনীয়

প্রানিসম্পদ সেক্টরে পেশাজীবিদের মধ্যে বিদ্যমান সঙ্কট নিরসনে ভেটেরিনারিয়ানদের করনীয়

সম্প্রতি লাইভস্টক বিভাগের অর্গানওগ্রাম নিয়ে ভেটেরিনারিয়ানদের মধ্যে যারপর নাই অসন্তূশের সৃষ্টি হয়েছে।  সংগত কারনে এর প্রতিবাদে আন্দোলনের প্রস্তুতিও চলছে। দুর্ভাগ্যজনক হলেও সত্যি যে এখন থেকে প্রায় ৫০ বছর আগে, বাংলাদেশ কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়ে ভেটেরিনারির সাথে এনিম্যাল হাসব্যান্ড্রি নামক ফ্যাকাল্টিটি চালুর পর থেকেই প্রানিসম্পদ সংশ্লিষ্ট শিক্ষা ও পেশাজীবিদের মধ্যে পরস্পর বিরোধী আন্দোলন চলেই আসছে। এই আন্দোলনের ফলে আপাত দৃষ্টের যে সংকট, তার কোন ফলপ্রসু সমধান আসলে এখন পর্যন্ত বের হয়নি বরং সঙ্কট প্রতিনিয়ত বৃদ্ধি পাচ্ছে। বিতর্কেরও শেষ নেই যে বাংলাদেশে প্রানিসম্পদ উন্নয়নে পশুপালন ও পশু চিকিৎসা বিষয়ক দুটি আলাদা ধারার প্রয়োজন আছে কি বা নেই। বলার অপেক্ষা রাখে না যে দুটি পেশাজীবি দলের কার্য্যধারা সুনির্দিষ্ট ভাবে বিভক্ত। ফলে এ বিষয়ে বিতর্কের আসলে কোন অবকাশ নেই। কিন্তু সমস্যাটি সৃষ্টি হয়েছে তখনি যখন সরকারী চাকরির ক্ষেত্রে এই দুটিগ্রুপকে সুনির্দিষ্ট ভাবে বিভাজিত করা হয়নি। ফলে একটি গ্রুপ আর একটি গ্রুপকে পুরপুরি নিশ্চিহ্নের চেষ্টা করেই যাচ্ছে। সম্প্রতি সচেতন ভেটেরিনারি পেশজীবিদের পক্ষ থেকে আন্দোলনের ডাক দিয়ে একটি পত্র বিলি করা হয়েছে। পত্রটি এই ব্লগে পোস্ট করার জন্য  প্রিয় ভেটেরিনারিয়ান নাছরিন দোলন আপনাকে ধন্যবাদ। এই চিঠিটি গত ৫০ বছরে ছাপিত হাজারো চিঠির মতো একটি। অসংখ্য সমস্যা উপ্সথাপিত হয়েছে কিন্তু সমাধানের কোন দিক নির্দেশনা জানা নেই। আন্দোলনের অংশ হিসাবে ক্লাশ পরীক্ষা বন্ধ করে অতীতে কি ফলাফল হয়েছে তাও কম বেশী আমাদের সবারই জানা। আপনি যে পেশজীবি দলটির সদস্যই হোন না কেন বিপক্ষ পেশাজীবি দলটির প্রয়োজনীয়তা আপনি সম্পূর্ণভাবে অস্বীকার করতে পারবেন না। দেশে প্রানিসম্পদের উন্নতি ও আপাত দৃষ্টের এই সমস্যাটির সমাধানে এই মুহূর্তে একটাই  মাত্র দাবী হয়া উচিৎ,  আর তাহলো “লাইভষ্টক মন্ত্রনালয়ে দুইটি ডাইরেক্টরেট চালু কর”। একটি “ডিপারটমেন্ট অফ লাইভষ্টক প্রডাকশন সার্ভিস” আর অপরটি “ডিপারটমেন্ট অফ ভেটেরিনারি সার্ভিস”। অন্যথায় এই সমস্যা চলতেই থাকবে, কোনদিন এর সমাধান হবে না। আর সেই সাথে আর একটি কথা না বললেই নয় – ভেটেরিনারি  সার্ভিসের গুনগত মান, তার পরিধি আরেকটু সম্মানজনক স্থানে নেয়া এবং ভেটেরিনারিয়ানের আথরিটি সংহতকরনের জন্যে এর বিকল্প নেই। আপনি কি পারবেন এই আন্দলনে শরীক হতে? তাহলে আসুন এবং বলুন “সতন্ত্র ভেটেরিনারি ডাইরেক্টরেট চাই”।  আপনার ঐ বন্ধুকেও বলতে বলুন লাইভষ্টক প্রডাকশান ডাইরেক্টরেট চাই। ঊভয় গ্রুপই খুশি হবে, পদ বাড়বে আর এতে লাইভষ্টকেরই উন্নতি হবে। সেই সাথে মানুষ জানবে কোন অফিসে সিরিঞ্জ-নিডেল-ষ্টেথো থাকে আর কোন অফিসে গরু চড়ানো, ঘোড়ার ঘাস কাটা ইত্যাদি বিষয়ে জ্ঞান দেয়া হয়।

লেখকঃ ডক্টর আজিজ সিদ্দিকী

Dr. Aziz Siddiqui, DVM, MS (Vet Obs), PhD is a Scientist in the University of Wisconsin-School of Veterinary Medicine, USA. He is a graduate of Bangladesh Agricultural University and received pre-doctoral and post-doctoral training on animal reproduction from the University of Wisconsin-Madison, USA. Previously Dr. Aziz worked in Bangladesh Agricultural University, Department of Livestock Services-Bangladesh, and in Eutheria Foundation and Accelerated Genetics in USA. For last 16 years Dr. Aziz has been involved in animal reproduction research. (Profile created in July 2012). Email: azizsiddiqui@gmail.com, Ph: +1 (608) 433-4172

এটাও দেখতে পারেন

bva bd logo

বিভিএ’র নবনির্বাচিত কমিটির বিগত এক মাসের অর্জন

এক মাস পূর্ণ করলো বিভিএ ২০১৭-২০১৮ কমিটি। কেমন ছিলো এই এক মাসের অগ্রযাত্রা ? কী …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *