নীড় / বিবিধ / সংবাদ / এভিয়ান ইনফ্লুয়েঞ্জা প্রতিরোধে উপজেলা প্রাণিসম্পদ দপ্তর,ঈশ্বরদী,পাবনা’র গৃহিত চলমান কার্যক্রমের অংশ বিশেষ

এভিয়ান ইনফ্লুয়েঞ্জা প্রতিরোধে উপজেলা প্রাণিসম্পদ দপ্তর,ঈশ্বরদী,পাবনা’র গৃহিত চলমান কার্যক্রমের অংশ বিশেষ

১.ঈশ্বরদী উপজেলা প্রাণিসম্পদ দপ্তরের উদ্যোগে মুরগি ব্যবসায়ীদের নিয়ে সচেতনতা সভা ও মুরগি বাজারে জীবাণুনাশক স্প্রে  কার্যক্রম পরিচালনা।

গত ১৮/১১/২০১২ ইং তারিখ উপজেলা প্রাণিসম্পদ দপ্তর ঈশ্বরদী’র উদ্যোগে ঈশ্বরদী পৌর মুরগি বাজারে এভিয়ান ইনফ্লুয়েঞ্জা(বার্ড ফ্লু) প্রতিরোধে মুরগি ব্যবসায়ীদের করণীয় বিষয়ে সচেতনতা সভা আয়োজন করা হয় ও জীবাণুনাশক স্প্রেকরন কার্যক্রম উদ্বোধন করা হয়। সভায় উপস্থিত ছিলেন ঈশ্বরদী উপজেলা নির্বাহী অফিসার নাজনীন হোসেন,উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডাঃ আমিন আহমেদ খান, উপজেলা প্রাণিসম্পদ কর্মকর্তা জনাব মোঃ মহির উদ্দীন,ঈশ্বরদী পৌরসভার কাউন্সিলর জনাব মোঃ আনোয়ার হোসেন জনি ও আব্দুল আজিজ, বণিক সমিতির সভাপতি জনাব ইউনুছ আলী মিন্টু, সমকাল পত্রিকার প্রতিনিধি সেলিম সরদার,চেতনায় ঈশ্বরদী’র ফটো সাংবাদিক বাবুল আকতার, এ আই পি আর পি’র ফিল্ডম্যান এবাদত হোসেন।

চিত্রঃ ১. উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা নাজনীন হোসেন, স্বাস্থ্য ও পঃ পঃ কর্মকর্তা ডাঃ আমিন আহমেদ খান ও মুরগি ব্যবসায়ীবৃন্দ
চিত্রঃ ২. উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা ও উপজেলা প্রাণিসম্পদ কর্মকর্তা মোঃ মহির উদ্দীন কর্তৃক স্প্রে করণ
চিত্রঃ চলছে স্প্রে কার্যক্রম

উপজেলা প্রাণিসম্পদ কর্মকর্তা আসন্ন শীত মৌসুমে এভিয়ান ইনফ্লুয়েঞ্জা রোগ প্রতিরোধে ও জনস্বাস্থ্যের কথা বিবেচনা করে মুরগি ব্যবসায়ীদের অসুস্থ মুরগি ক্রয়- বিক্রয় না করা, ড্রেসিং এর পর মুরগির পালক,নাড়ী-ভুড়ি নিদিষ্ট স্থানে ফেলার জন্য অনুরোধ করেন। এবং মুরগি কেনার পর গ্রাহক যাতে মুরগি ড্রেসিং করে নিয়ে যায় এ বিষয়ে গ্রহকদের উদ্বুদ্ধকরেনের পরামর্শ দেন। উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা অফিসার বার্ড ফ্লু প্রতিরোধে মুরগি ব্যবসায়ীসহ সকলের সহযোগিতা কামনা করেন।  উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা তার বক্তব্যে  বাজার পরিষ্কার -পরিচ্ছন্ন রাখার উপর গুরুত্ব দেন। পরে তিনি জীবাণুনাশক স্প্রে কার্যক্রম উদ্বোধন করেন।

 

 

 

 

 

 

২. ঈশ্বরদী উপজেলা প্রাণিসম্পদ দপ্তরের উদ্যোগে এভিয়ান ইনফ্লুয়েঞ্জা(বার্ড ফ্লু) প্রতিরোধে করণীয় বিষয়ে মত বিনিময় সভাঃ

চিত্রঃ ৪.(বাম দিক থেকে) পাবনা জেলা ভেটেরিনারী কর্মকর্তা ডাঃ দেলুয়ারা, উপজেলা প্রাণিসম্পদ কর্মকর্তা জনাব মোঃ মহির উদ্দীন, দাশুড়িয়া ইউ,পি চেয়ারম্যান, জনাব শরীফ উদ্দীন ভি,এফ,এ
চিত্রঃ ৫. উপস্থিত খামারীবৃন্দ

গত ৪ ডিসেম্বর ঈশ্বরদী উপজেলা প্রাণিসম্পদ দপ্তরের উদ্যোগে দাশুড়িয়া ইউনিয়ন পরিষদ হল রুমে এভিয়ান ইনফ্লুয়েঞ্জা(বার্ড ফ্লু) প্রতিরোধে করণীয় বিষয়ে মত বিনিময় সভা অনুষ্ঠিত হয়। সভায় উপস্থিত ছিলেন দাশুড়িয়া ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান জনাব মোঃ আমিনুল ইসলাম কেনেডী,উপজেলা প্রাণিসম্পদ কর্মকর্তা জনাব মোঃ মহির উদ্দীন,পাবনা জেলা ভেটেরিনারী কর্মকর্তা ডাঃ দেলুয়ারা ,জনাব শরীফ উদ্দীন ভি.এফ.এ ,এ.আই.পি.আর.পি প্রজেক্টের ফিল্ডম্যান মোঃ এবাদত হোসেন এবং দাশুড়িয়া ইউনিয়নের মুরগি খামারী এবং মুরগি বিক্রেতা। সভায় উপজেলা প্রাণিসম্পদ কর্মকর্তা খামারী এবং মুরগি বিক্রেতাদের অসুস্থ মুরগি ক্রয়-বিক্রয় না ,কোন খামারে অস্বাভাবিক হারে মুরগি মারা গেলে তা দ্রুত উপজেলা প্রাণিসম্পদ দপ্তরকে অবহিত করা,মৃত মুরগি গর্ত করে পুঁতে রাখার করা জন্য অনুরোধ করেন। এছাড়া তিনি বিক্রিত মুরগি ড্রেসিং করে মুরগির নাড়ী,ভুড়ি,পালক একটি স্থানে ফেলার জন্য মুরগি বিক্রেতাদের অনুরোধ করেন এবং মুরগি বাজারে একটি ঢাকনাযুক্ত ডাস্টবিন বা পিট তৈরি করে দেয়ার জন্য উপস্থিত চেয়ারম্যান মহোদয়ের দৃষ্টি আকর্ষন করেন। সভায় ডাঃ দেলুয়ারা খামারের বায়োসিকিউরিটি মেনে চলার জন্য এবং চেয়ারম্যান মহোদয় খামার পরিষ্কার রাখার জন্য খামারীদের অনুরোধ জানান।

 

৩. ঈশ্বরদীতে এভিয়ান ইনফ্লুয়েঞ্জা(বার্ড ফ্লু) প্রতিরোধে জনসচেতনতামূলক  মত বিনিময় সভা অনুষ্ঠিতঃ

চিত্রঃ ৬ ও ৭. বক্তব্য রাখছেন বীরমুক্তি যোদ্ধা সাংবাদিক মোঃ ফজলুর রহমান ফান্টু সহঃ পরিচালক ,জেঃকৃঃ প্রজনন কেন্দ্র,পাবনা।

গত ২৩ ডিসেম্বর ,২০১২ ইং তারিখে ঈশ্বরদী উপজেলা কৃষক প্রশিক্ষণ কেন্দ্রে এভিয়ান ইনফ্লুয়েঞ্জা প্রিপেয়ার্ডনেস এন্ড রেসপন্স প্রজেক্ট’এর আওতায়  ঈশ্বরদী উপজেলার মুরগি খামারী ও মুরগি বিক্রেতাদের অংশ গ্রহনে এভিয়ান ইনফ্লুয়েঞ্জা(বার্ড ফ্লু) প্রতিরোধে জনসচেতনতামূলক মত বিনিময় সভা অনুষ্টিত হয়। মত বিনিময় সভায় ঈশ্বরদী উপজেলার বিভিন্ন স্থান থেকে আগত ৬৭ জন খামারী ও মুরগি বিক্রেতা অংশ গ্রহন করেন। বক্তব্য রাখেন পাবনা জেলা কৃত্রিম প্রজনন কেন্দ্রের সহকারী পরিচালক জনাব এ,এইচ,এম মনোয়ার হোসেন, উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডাঃ আমিন আহমেদ খান, উপজেলা প্রাণিসম্পদ কর্মকর্তা জনাব মোঃ মহির উদ্দীন, ভেটেরিনারী অফিসার ডাঃ দেলুয়ারা,ঈশ্বরদী প্রেস ক্লাবের সেক্রেটারী জনাব মোস্তাক আহমেদ কিরন,বীর মুক্তিযোদ্ধা ও সিনিয়র সাংবাদিক,সাপ্তাহিক চেতনায় ঈশ্বরদী’র সম্পাদক জনাব মোঃ ফজলুর রহমান ফান্টু। মত বিনিময়ে অংশ নেন পোল্ট্রি খামারী এসাসিয়েশনের সভাপতি জনাব আরশাদ পারভেজ গুড্ডু,খামারী জনাব মোঃ সাইফুল ইসলাম,জনাব মাহতাব হোসেন, উপস্থিত ছিলেন ফটো সাংবাদিক বাবুল আকতার, উপজেলা প্রাণিসম্পদ দপ্তরের ভি,এফ,এ আঃ মান্নান,শরীফ উদ্দীন,মতিয়ুর রহমান,ফিল্ডম্যান এবাদত হোসেন,এ,আই,ওয়ার্কার বেলাল উদ্দীন,হাবিবুর রহমান, এবং রেজাউল করিম। মত বিনমিয় সভায় সকল বক্তা’ই খামারী,ব্যবসায়ী,জনপ্রতিনিধি,মিডিয়াকর্মী এবং প্রাণিসম্পদ বিভাগের কর্মকর্তা-কর্মচারীসহ পোল্ট্রি সংশিস্নষ্ট সকলের সম্মিলিত ও সমন্বিত প্রচেষ্টার মাধ্যমে পোল্ট্রি শিল্পকে এভিয়ান ইনফ্লুয়েঞ্জার বিপর্যয় থেকে রক্ষা করা সম্ভব বলে মত প্রকাশ করেন্‌ এবং সকলের সমন্বয়ের উপর গুরুত্ব আরোপ করেন। উপজেলা প্রাণিসম্পদ কর্মকর্তা প্রচন্ড শীত উপেক্ষা করে স্বতঃস্ফূর্ত অংশ গ্রহনের জন্য সকলকে ধন্যবাদ জানান এবং হাঁস-মুরগির অস্বাভাবিক মৃত্যু দেখা দিলে নিকটস্থ প্রাণিসম্পদ অফিসে জানানো,অসুস্থ হাঁস-মুরগি ক্রয়-বিক্রয় না করা,মৃত হাঁস-মুরগি গর্ত করে মাটি চাপা দেওয়া এবং খামার পরিষ্কার-পরিচ্ছন্ন রাখার জন্য খামারী এবং মুরগি বিক্রেতাদের অনুরোধ জানান।

 

৪. ঈশ্বরদীর ইস্তা গ্রামে ছেড়ে পালন করা মুরগিকে রাণিক্ষেত রোগের টিকা প্রদানঃ

কোন রোগের জীবাণু বাতসের মাধ্যমে কয়েক ফুট অতিক্রম করতে পারে। প্রধানত: কোন না কোন মাধ্যমে খামারে রোগের বিস্তার ঘটে। মুরগির রোগ বিস্তারের অন্যতম প্রধান মাধ্যম হলো মুরগি নিজে। আমাদের দেশে বাণিজ্যিক মুরগি পালন ব্যাপকভাবে সম্প্রসারিত হয়েছে। এ সব খামার এভিয়ান ইনফ্লুয়েঞ্জাসহ নানা মহামারি রোগ আক্রানত্ম হয়। ছেড়ে পালন করা মুরগি এ সব রোগের একটি কারন। ছেড়ে পালন করা মুরগিকে যদি নিয়মিত রাণীক্ষেত,কলেরা ও পক্স রোগের টিকা প্রদান করে ইমিউনিটি লেভেল বাড়ানো যায় তাহলে একদিকে যেমন ছেড়ে পালন করা মুরগির মৃত্যু কমে যাবে তেমনি বাণিজ্যিক খামারে রোগ সংক্রমণের মাত্রা অনেক কমে যাবে।

চিত্রঃ টিকা প্রদান করছেন এ,আই,ওয়ার্কার রেজাউল করিম।

 

৫. খামার পরিদর্শন ও পরামর্শ প্রদানঃ

খামার রোগমুক্ত রাখতে খামার ব্যবস্থাপনা ও বায়োসিকিউরিটি যথাযথ ভাবে প্রতিপালিত হচ্ছে কি না এ বিষয়ে নিয়মিত খামার পরিদর্শনের মাধ্যমে খামারীদের পরামর্শ প্রদান ও তাদের সাথে মত বিনিময় করা যায়। ইউ,এল, ও/ভি,ও/প্রাণিসম্পদ দপ্তরের ভি,এফ,এ/ ফিল্ডম্যান এবং এভিয়ান ইনফ্লুয়েঞ্জা ওয়ার্কার এর মাধ্যমে এ কার্যক্রম নিয়মিত পরিচালিত হচ্ছেঃ

চিত্রঃ ইউ,এল,ও ঈশ্বরদী কর্তৃক লেয়ার খামার পরিদর্শন ও পরামর্শ প্রদান।

 

৬.  ঈশ্বরদী উপজেলার সরাইকান্দি গ্রামে প্রাণিসম্পদ সেবা ক্যাম্প পরিচালনাঃ

captio=”চিত্রঃ ক্যাম্পে আগত গবাদিপ্রাণি চিকিৎসা দেওয়া হচ্ছে।

গত ২৬/১২/২০১২ ইং তারিখ উপজেলা প্রাণিসম্পদ দপ্তর, ঈশ্বরদীর উদ্যোগে মুলাডুলি ইউনিয়নের সরাইকান্দি সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয় মাঠে প্রাণিসম্পদ সেবা ক্যাম্প পরিচালনা করা হয়। সেবা ক্যাম্পে উপস্থিত ছিলেন উপজেলা প্রাণিসম্পদ

কর্মকর্তা জনাব মোঃ মহির উদ্দীন, ভেটেরিনারী অফিসার ডাঃ দেলুয়ারা,ভি,এফ,এ জনাব শরীফ উদ্দীন,এল,এস,পি আলতাফ হোসেন,ফিল্ডম্যান এবাদত হোসেন, গেস্নাব এর বিক্রয় প্রতিনিধি,স্থানীয় ইউ,পি সদস্যের প্রতিনিধি। ক্যাম্পে আগত গবাদিপ্রাণিকে চিকিৎসা,ব্যবস্থাপত্র,কৃত্রিম প্রজনন,টিকা প্রদান এবং খামার স্থাপন,ব্যবস্থাপনা ও বায়োসিকিউরিটি বিষয়ে উপস্থিত কৃষক/খামারীদের পরামর্শ প্রদান করা হয় । উপজেলা প্রাণিসম্পদ অফিসের নিয়মিত কার্যক্রমের অংশ হিসাবে অক্টোবর/২০১২ হতে উপজেলার বিভিন্ন স্থানে ক্যাম্প পরিচালিত হয়ে আসছে ।

 

৭. দক্ষিনাঞ্চলের গেটওয়ে দাশুড়িয়া মোড়ে জনসচেতনতামূলক ব্যানার স্থাপনঃ

চিত্রঃ দাশুড়িয়া মোড়ে ব্যানার বাঁধায় ব্যাস্ত কর্মীরা

লেখকঃ মোঃ মহির উদ্দীন

উপজেলা প্রাণিসম্পদ কর্মকর্তা, ঈশ্বরদী, পাবনা। মোবাইলঃ ০১৭১৬১৭২৯৫৭ ইমেইলঃ uloish2011@gmail.com

এটাও দেখতে পারেন

আগামীকাল থেকে শুরু হচ্ছে বিভিএ-র সম্মেলন

আগামীকাল থেকে শুরু হচ্ছে বাংলাদেশ ভেটেরিনারি এসোসিয়েশন-এর বিভাগীয় সম্মেলন। ১৯৭২ সালে প্রতিষ্ঠা লাভের পর এবারই …

একটি মন্তব্য

  1. আপনাকে অনেক ধন্যবাদ।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *